হাতের লেখা ভালো করার উপায় বা কৌশল


হাতের লেখা ভালো করার উপায় বা কৌশল

নিজের ইচ্ছে বা আগ্রহ

হাতের লেখা সুন্দর করার জন্যে সবচাইতে যেটি বেশি প্রয়োজন তা হলো নিজের ইচ্ছাশক্তি। কথায় বলে, ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। তাই কেউ যদি আসলেই নিজের হাতের লেখা সুন্দর করতে চান তাহলে কিছুটা কষ্ট, শ্রম ও সময় ব্যয় করার জন্যে প্রস্তুত থাকতে হবে। উপযুক্ত চেষ্টার ফলেই হাতের লেখা সুন্দর করে তোলা সম্ভব।

সঠিকভাবে কলম ধরা

লেখা সুন্দর করার পেছনে সঠিকভাবে কলম বা পেন্সিল ধরা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তবে কলম বা পেন্সিল ধরার তেমন কোনো লিখিত নিয়ম নেই। এসব ক্ষেত্রে নিজের স্বাচ্ছন্দ্যকেই অধিক গুরুত্ব দেয়া হয়। তবে অনেকের ধারণা কলমের মাথার একটু উপরে ধরলে লেখা অনেকটা ধীরে হয় এবং সোজা থাকে।

মনোযোগী হওয়া

 কি লিখছেন তার দিকে মনোযোগী হতে হবে। আপনি লিখছেন একটি বাক্য। কিন্তু ভুলে যাবেন না আপনি খুব দ্রুত কিছু বর্ন লিখছেন। যখনি বর্ন লিখছেন তখনি আপনাকে আবারো মনে রাখতে হবে আপনি ঠিক কোন কাঠামোর বর্নটি লিখছেন। এই খুটিনাটি বিষয় নিয়েই হচ্ছে আপনার হাতের লেখা সুন্দর করার সর্বোচ্চ চেষ্টা।

ধীরে লেখার চেষ্টা

লেখার অনুশীলনীর জন্যে ধীরভাবে লেখার চেষ্টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কতটা দ্রুত লেখা শেষ করা যায় তার দিকে নজর না দিয়ে ভুল শব্দের মাত্রা কমিয়ে ধীরে ধীরে লেখার অনুশীলন করতে হবে। লেখা শেখা কোনো দৌড় প্রতিযোগিতা নয়। তাই নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ রেখে ধীরে ধীরে লেখা সুন্দর করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। কিছু সময় পর লেখার গতি আপনা-আপনি বেড়ে যাবে। প্রথমদিকে লেখার স্বাভাবিক ধরন কিছুটা বড় বড় আকার ধারণ করতে পারে। কিন্তু তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার প্রয়োজন নেই। লেখার উপর যখন নিজের দখল তৈরি হবে তখন নিজে থেকেই লেখার আকার আপনার ইচ্ছের উপর পরিবর্তন হয়ে যাবে।

Related Articles  অবশেষে এস এস সি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের তারিখ প্রকাশ
সময় ব্যয় এবং টাইম ফ্রেম নির্ধারন

 আপনি একদিনে হাতের লেখা পাল্টাবেন? পারবেন না। এটা এতটাই সহজ কিছু নয়। এর জন্য আপনাকে একটি টাইম ফ্রেম বেঁধে দিতে হবে। আমি সবসময় নতুনদেরকে একমাস সময় নিতে বলি। এবং প্রতিদিন একঘন্টা। যদি কেউ এর কম সময় দেন এবং পিছিয়ে আসেন তবে তিনি সত্যিই চেষ্টা করেন নি। অনেকের ক্ষেত্রে আর আগেই হয়, কন্তু বেশিরভাগ মানুষ এর চেয়ে বেশি সময় নিয়েছেন।

নিয়মিত অনুশীলন

নিয়মিত লেখালেখির চর্চা করা লেখা সুন্দর করার এক এবং অদ্বিতীয় উপায়। একটি নির্দিষ্ট নিয়ম অনুসরণ করে নিয়মিত হাতের লেখা চর্চা করে যেতে হবে। বর্তমানে ইন্টারনেটের যুগে আমাদের লেখালেখির অভ্যাস অনেকটাই কমে গেছে বললেই চলে। তবে লেখা সুন্দর করার ইচ্ছে থাকলে প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময় ঠিক করে ধৈর্য্যের সাথে অনুশীলন করতে হবে। তবেই একটি সময় এর ফলাফল আপনি পাবেন। 

এই পদ্ধতিগুলো অবলম্বন করলে আশা করলে আপনার হাতের লেখা সুন্দর হয়ে যাবে । ভিসিট করুন আমাদের English Website http://www.asifsdairy.xyz হাতের লেখা ভালো করার উপায় বা কৌশল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *