সফল হওয়ার কিছু উপায়


সফল হওয়ার কিছু উপায়

গুগলে এসে সার্চ বক্সে যদি লিখেন সফল হওয়ার উপায় বা সফলতা পাওয়ার উপায় তাহলে হয়তো আপনি শো খানেক উপায় পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন- প্রথম প্রেমে পড়ার কিছু লক্ষন বা অনুভূতি

কিন্তু সত্যি কথা বলতে এর মধ্যে ২০ টা উপায় ও আপনার পক্ষে আপনার জীবনে বাস্তবিক অর্থে প্রয়োগ করা সম্ভব নয়৷

শুধু সেগুলো পড়বেন তারপর সেই মুহূর্তে মনে হবে ব্যাচ এই নিয়মগুলো অনুসরন করলেই আমি সফল হয়ে যাব। তাহলে কালকে থেকেই এগুলো অনুসরন করা শুরু করবো৷

হয়তো দুইদিন আপনি কষ্ট করে সেই উপায়গুলো অনুসরন করলেন তারপর তিন দিনের দিন যা তাই। আপনার জীবনে সফলতা আর আসলো না৷

আরও পড়ুন- কিভাবে ওজন কমানো যায় ?

আসলে সফলতা আসবে ওই ১০০ টি উপায় পড়ার মধ্যে দিয়ে নয় ওই ১০০ টা উপায়ের একটি হলেও উপায় আপনাকে অনুসরন করতে হবে।

আজ আপনাকে বলবো সফল হওয়ার কিছু বাস্তবসম্মত উপায় –

প্রথমত আপনার নিজেকে পরিমাপ করতে হবে এই ধরুন আপনি কি ধরনের কাজ করতে পছন্দ করেন বা কি ধরনের কাজ করতে পারেন। আপনি কতটা পরিশ্রম করতে পারেন?  আপনার নিজের সম্পর্কে আপনার এইসব বিষয়ে ধারনা থাকতে হবে।

দ্বিতীয়ত কোন শর্টকাট মাধ্যমে সফলতা অর্জন করার চেষ্টা করা যাবে না কারন মনে রাখবেন শর্টকাট পদ্ধতিতে সফলতা অর্জন করতে চাওয়া সবচেয়ে বড় বোকামি কারন সফলতার কোন শর্টকাট হয় না৷

আরও পড়ুন- যে অভ্যাসগুলো বদলে দিতে পারে আপনার জীবন

তৃতীয়ত অতি মাত্রার ঞ্জানী ও বুদ্ধিমান লোক এড়িয়ে চলুন৷ কারন এমন কিছু লোক আছে তারা দেখবেন আপনাকে শুধু ঞ্জান দিয়ে যাবে। লক্ষ্য করে দেখবেন তারা নিজেরাই জীবনে কিছু করতে পারে নাই। অন্যকে ঞ্জান দেওয়াই তার একমাত্র কাজ। এই সমস্ত লোক এড়িয়ে চলুন।

Related Articles  ব্যবহৃত মাস্ক-গ্লাভস যত্রতত্র ফেলে যে ক্ষতি করছেন

চতুর্থত আপনার পক্ষে যা করা একেবারে  অসম্ভব তা করার চেষ্টা করে শুধু শুধু সময়ের অপচয় করবেন না। ধরুন আপনি একজন হিসাববিজ্ঞানের ছাত্র আপনার দ্বারা নিশ্চয়ই ডাক্তারি হবে না৷ তাই নিজের আয়ত্তের মধ্যে যে কাজগুলো আছে সেগুলো করার চেষ্টা করুন।

পঞ্চমত অতি মাত্রায় স্বপ্ন দেখবেন না স্বপ্ন দেখা ভালো তবে অতি মাত্রায় স্বপ্ন দেখা ভালো না৷ আমরা অনেক সময় নিজের সাধ্যের বাইরে গিয়ে অতি মাত্রায় স্বপ্ন দেখতে শুরু করি। আমি একজন রিকশাচালক হয়ে কালকেই একটা প্রাইভেট কার কিনে ফেলার চিন্তা করতে পারি না৷

ষষ্ঠত যেই কাজটা আপনি পারেন না বা বুঝেন না সেই কাজটার পিছনে অযথা পরিশ্রম করবেন না। পরিশ্রম করতে বলা হয়েছে বলে যে কোন অযথা বিষয়ে পরিশ্রম করে যাবেন ঠিক তা কিন্তু নয়৷ আপনি যেই কাজটা পারেন বা যেই বিষয়টার প্রতি আপনার আগ্রহ সেই কাজটার পিছনে পরিশ্রম দিন। ধরুন আপনার ফটোগ্রাফি ভালো আপনি মিউজিকের পিছে সময় দিচ্ছেন এইটা না করে আপনি ফটোগ্রাফির পিছে সময় দিন দেখবেন সফলতা দ্রুত চলে আসবে৷

সফলতার জন্য যে পাঁচটি বিষয় অতীব জরুরি

১/ সময়ের মূল্য – আপনাকে অবশ্যই সমযের মূল্য দিতে হবে কারন হারানো সময় আর ফিরে আসবে না তাই সময়ের কাজ অবশ্যই আপনাকে সময়মত করতে হবে। একদিনের কাজ আরেকদিনের জন্য রেখে দেওয়া ঠিক নয়।

২/ পরিশ্রমের বিকল্প নেই – সফলতার জন্য পরিশ্রমের বিকল্প নেই। আপনি যদি কম মেধা শূন্য হোন বা আপনার যদি কর্মদক্ষতা শূন্য ও হয় তাও আপনার পরিশ্রম আপনাকে সফলতা আনে দিবে।

৩/ হাল ছাড়া যাবে না – বাংলায় একটা প্রবাদ আছে একবার না পারিলে দেখো শতবার৷ কখনো আশা ত্যাগ করা যাবে না বা হাল ছাড়া যাবে না৷ চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে দেখবেন দিন শেষে সফলতা আসবে।

Related Articles  প্রথম প্রেমে পড়ার কিছু লক্ষন বা অনুভূতি

আরও পড়ুন- যে চিন্তাগুলো মাথা থেকে ঝেড়ে ফেললে আপনিও পাবেন চাকরি।

৪/ অন্যের কথায় কান দেওয়া যাবে না- আমাদের সমাজে এমন কিছু মানুষ আছে যাদের কাজই অন্যের পিছে লেগে থাকা। নিজে তো কিছু করতেই পারে না। অন্যরা করলেও তার হিংসা হয় তাই অন্যের কথায় কান দিবেন না।

৫/ নিজের উপর বিশ্বাস রাখুন – সফল হওয়ার সবচেয়ে উত্তম উপায় নিজের উপর বিশ্বাস রাখা। নিজের উপর বিশ্বাস থাকলে আপনার জীবনে অবশ্যই সফলতা আসবে। কখনো নিজের উপর থেকে বিশ্বাস হারাবেন না। নিজের মতিস্কে সবসময় একটা জিনিস সেভ করে রাখবেন আমি পারবো, আমাকে পারতে হবে৷ 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *