রাজধানীতে চলন্ত বাসে কিশোরীকে গণধর্ষণ


রাজধানীতে চলন্ত বাসে কিশোরীকে গণধর্ষণ

রাজধানীর মিরপুরে চলন্ত বাসে এক কিশোরীকে (১৪) গণধর্ষণ করা হয়েছে। ধর্ষনের পর অচেতন অবস্থায় তাকে বাস থেকে ফেলে দেয়া হয়। এ ঘটনায় বাসচালক ও হেল্পারকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শাহ আলী থানার ওসি আবুল বাসার মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, ওই কিশোরী একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক। তার বাবা-মা নেই। পালিতকন্যা হিসেবে পল্লবীর আলুব্দী এলাকার একটি পরিবারের সঙ্গে থাকে। মঙ্গলবার সে আব্দুল্লাপুর থেকে চিড়িয়াখানা রোডে চলাচল করা শতাব্দী পরিবহনের বাসে ওঠে। আমিনবাজারে এক আত্মীয়ের বাসায় যাওয়ার কথা ছিল তার। তবে বোকাসোকা ধাঁচের ওই কিশোরীকে উল্টোপাল্টা বুঝিয়ে বাস থেকে নামতে দেয়নি চালক মোহাম্মদ রাফি ও হেলপার বিদ্বান মিয়া।

তিনি জানান, সব যাত্রী নেমে যাওয়ার পর চিড়িয়াখানা রোডে বাসটি পরিষ্কার করার সময়ও তাকে বাসে বসিয়ে রেখেছিল ওই দুজন। এরপর চলন্ত বাসে রাফি ও বিদ্বান পালা করে তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে মিরপুর-১ নম্বরের চাইনিজ রেস্টুরেন্ট এলাকায় তাকে ফেলে পালায় ধর্ষকরা। অচেতন কিশোরীর পড়ে থাকার খবরে একাধিক থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে দেখা যায়, ঘটনাস্থল শাহ আলী থানায় পড়েছে। এ ঘটনায় রাতেই মামলা নেয়া হয়।

শাহ আলী থানার পরিদর্শক (অপারেশন) জাহিদুর রহমান জানান, মামলায় তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।ইতিমধ্যে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Related Articles  কারওয়ান বাজারের বিডিবিএল ভবনে আগুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *