বাংলা নাটকের জনপ্রিয় দশ নায়িকা


বর্তমান সময়ের বাংলা নাটকের জনপ্রিয় দশ নায়িকা

১০/ শায়লা সাবি
শায়লা সাবি বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী ।
চ্যানেল আইয়ের সেরা নাচিয়ে প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শোবিজে পা রেখেছিলেন শায়লা সাবি।
২০১৪ সালে গীতালী হাসানের ‘প্রিয়া তুমি সুখী হও’ সিনেমায় নায়ক ফেরদৌসের বিপরীতে অভিনয় দিয়ে মিডিয়ায পাকাপোক্ত ভাবে কাজ শুরু করেন ।
মাঝে বিয়ে ও এক বছর আগে কন্যাসন্তানের মা হয়েছেন তিনি। তাই প্রায় দুই বছর ক্যামেরার বাইরে ছিলেন।
আবার অভিনয়ে ফিরেছেন মডেল, অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী শায়লা সাবি। বর্তমানে তিনি নাটকের দিকে বেশী মনোযোগী হয়েছেন ।
অভিনয় করেছেন ‘মেমোরিজ-কল্পতরুর গল্প,বুয়াপ্রীতি’,‘জুতোর দোকানদার, ইত্যাদি নাটকে ।
শায়লা সাবি অভিনীত ও তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ‘আদি’ চলচ্চিত্রটি এখনো রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়।
এ ছবিতে তার নায়ক হিসেবে দর্শকরা এবিএম সুমনকে দেখতে পাবেন।

শায়লা সাবি

৯/ সাদিয়া জাহান প্রভা
সাদিয়া জাহান প্রভা ২০০৫ সাল থেকে মডেলিং এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন
প্রভা অনেক জনপ্রিয় টেলিফিল্ম, নাটক, মডেলিং এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন তারমধ্যে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।
তিনি ভার্সন জেড, হানিমুন, ধুপ ছায়া, লাকি থার্টিন, খুনসুটি ইত্যাদি নাটকে অভিনয় করেছেন।
তবে এখনো পর্যন্ত কোন চলচ্চিত্রে কাজ করেননি।অজ্ঞাত কারণে প্রভা ২০১০ সালের ১৮ই আগস্ট তার সহকর্মী ও জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বকে বিয়ে করেন।
এতে অপমানিত হয়ে প্রভার একটি আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশ করে রাজিব।
এর ফলে প্রভার ব্যক্তিগত ও পেশাগত কর্মজীবন ক্ষতিগ্রস্থ হয় এবং এর রেশ ধরে ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১১ সালে অপূর্বর সাথে প্রভার বিবাহবিচ্ছেদ হয়।
প্রভা তার অভিনয় জীবনে সাময়িক বিরতি আনেন এবং ২০১১ সালের ১৯শে ডিসেম্বর বহুজাতিক কোম্পানি গ্রামীণফোনের কর্মকর্তা মাহমুদ শান্তকে বিয়ে করেন।

সাদিয়া জাহান প্রভা

৮/ মুমতাহেনা টয়া-
টয়া ২০১০ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টারে প্রতিযোগী হিসাবে অংশ নিয়েছিলেন,
যেখানে তিনি ৫ম স্থান অধিকার করেছিলেন এবং মডেল হিসাবে তার পেশাজীবন শুরু করেছিলেন।
রুমানা রশিদ ঈশিতার পরিচালনায় অদেখা মেঘের কাব্য নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে তার অভিনয়ের জীবন শুরু হয়েছিল।
পরবর্তীতে তিনি অনেক টেলিভিশন অনুষ্ঠান, নাটক, টেলিফিল্ম এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন।
এছাড়াও তিনি অনেক ভিডিও গানেও কাজ করেছেন।
তার জনপ্রিয় একটি ভিডিও গানের নাম ‘লোকাল বাস’
টয়া রাহশান নূর পরিচালিত ‘বাঙালী বিউটি ’ নামে একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন ।

মুমতাহেনা টয়া

৭/ জাকিয়া বারি মম
এক সময় জনপ্রিয়তার তুংঙ্গে থাকলেও বর্তমান সময়ে অনকে পিছনে আছে জাকিয়া বারি মম
জাকিয়া বারি মম প্রথম টেলিভিশনে আবির্ভূত হন ১৯৯৫ সালে।
তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের নতুন কুড়ি প্রতিযোগিতায় পুরস্কার লাভ করেন।
এরপর ২০০৬ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার সৌন্দর্য্য প্রতিযোগিতায় জয়লাভ করেন।
তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নাট্য এবং নাট্যতত্ত্ব বিভাগে ২০১০ সালে স্নাতক আর ২০১২ সালে স্নাতকোত্তর পাশ করেন।
তিনি হুমায়ূন আহমেদ রচিত ও তৌকির আহমেদ পরিচালিত দারুচিনি দ্বীপ চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ পান।
এই চলচ্চিত্রে জরি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।
এরপর তিনি নাটকে অভিনয় করা শুরু করেন। তার অভিনীত স্বর্ণমায়া, বিবর, নীড় নাটকগুলো তাকে জনপ্রিয়তা পায়।
২০১৪ সালে যায়েদ খানের বিপরীতে প্রেম করব তোমার সাথে চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।
২০১৫ সালে দীর্ঘদিন পর দ্বিতীয় কুসুম ধারাবিহিক নাটকে অভিনয় করেন। পাশাপাশি ব্যস্ত ছিলেন শিহাব শাহীন পরিচালিত ছুঁয়ে দিলে মন চলচ্চিত্র নিয়ে।
রোমান্টিক ঘরানার এ চলচ্চিত্রে তার বিপরীতে অভিনয় করেন আরিফিন শুভ।
এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি মেরিল প্রথম আলো পুরস্কার-এ শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে দর্শক জরিপ ও সমালোচক পুরস্কার অর্জন করেন।
জাকিয়া বারি মম এক ঘন্টার নাটকের জন্য নেন ১৫-২০ হাজার টাকা ।

জাকিয়া বারি মম

আরও পড়ুন – অপূর্ব যেভাবে অভিনয়ে আসলো ।

/ সাফা কবির
আশফাক বিপুলের এয়ারটেলের একটি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি মিডিয়া জগতে পা রাখেন।
এরপর তিনি প্রাণ পিনাট বার ও প্যারাসুট নারকেল তেলের বিজ্ঞাপন চিত্রে অভিনয় করেন।
১৮ অল টাইম দৌড়ের উপর টেলিফিল্মে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনেত্রী হিসেবে যাত্রা শুরু করেন তিনি।
এরপর তিনি একটা মেয়ে নাটকে অভিনয় করেন। ২০১৪ সালে তিনি ভালবাসা ১০১ টেলিফিল্মটিতে অভিনয় করেন।
তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ থেকে বিবিএ ডিগ্রি লাভ করেন।
সাফা কবিরের উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে রয়েছে ভাই কিছু বলতে চায়,ফাহিম দ্য গ্রেট ফাজিল,মিলিয়নার ফ্রম বরিশাল,তবুও ভালবাসি
তার অভিনীত শর্ট ফিল্মগুলোর মধ্যে রয়েছে দেয়াল,বান্ধবী ,কানামাছি,অক্ষর

সাফা কবির

৫/ সাবিলা নূর
শৈশব থেকেই নাচের প্রতি আসক্তি ছিল। সাবিলা বুলবুল ললিতাকলা একাডেমি থেকে নাচ শিখে পদ্ম কুড়ি চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল যখন তিনি প্রথম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।
বর্তমানে তিনি ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন।সাবিলা ২০১৪ সাল থেকে মডেলিং এর মাধ্যমে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন।
তার জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনগুলোর মাঝে রয়েছে গ্রামীণ ফোন, নেস্কেফে, প্রান ফিট ইত্যাদি।
সাবিলা অনেক জনপ্রিয় টেলিফিল্ম, নাটক, মডেলিং এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন তারমধ্যে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন
সাবিলার প্রথম অভিনীত নাটক ইউ টার্ন। এছাড়া তিনি মাস্তি আনলিমিটেড,ক্রস কানেকশন,মিসফায়ার,পাষাণ ইজ ব্যাক,মেঘ এনেছি ভেজা ইত্যাদি নাটকে অভিনয় করেছেন ।

সাবিলা নূর

৪/ তাসনিয়া ফারিন
ছোটপর্দার অভিনেত্রীদের মধ্যে নতুন হিসেবে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় আছেন তাসনিয়া ফারিন।
২০১৭ সালে আমরা আবার ফিরবো কবে নাটকে অভিনয় দিয়ে ছোট পর্দায় তার অভিষেক হয়।
ঐ বছর ‘এক্স বয়ফ্রেন্ড’ নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি পরিচিতি পান ।
তাসনিয়া ফারিনের অভিনীত নাটকের মধ্যে আছে ‘ফার্স্ট ইয়ার ডেম কেয়ার-টু’,‘লাভ অ্যান্ড লস্ট’
লত মা সৈয়দা শারমিনের অনেক আগ্রহেই অভিনয়ে তাসনিয়া ফারিনের পথচলা।
তার প্রিয় অভিনয় শিল্পীদের মধ্যে রয়েছেন তারিক আনাম খান, সুবর্ণা মুস্তাফা, সালমান শাহ, জাহিদ হাসান. মোশাররফ করিম, পূর্ণিমা।

তাসনিয়া ফারিন

৩/তানজিন তিশা
ফ্যাশন শুট ও র‍্যাম্প মডেলিংয়ের মাধ্যমে তিশার কর্মজীবন শুরু হয়।
তিশা প্রথম মডেল হন অমিতাভ রেজা চৌধুরী পরিচালিত রবির একটি বিজ্ঞাপনে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে।
এটি তার ক্যারিয়ারের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক ছিল
তিশা ২০১২ সালে ইউটিউবে প্রচারিত রিজভি ওয়াহিদ এবং শুভমিতার গাওয়া চোখেরি পলকে মিউজিক ভিডিওতে অভিনয় করে তারকা খ্যাতি পান।
তিশার অভিনীত এই গানটি ব্যপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল।
তিনি ইমরান মাহমুদুল এর গান বলতে বলতে চলতে চলতে গানটির মিউজিক ভিডিওতে অভিনয় করেছিলেন। যেটি ইউটিউবে জনপ্রিয়তা পেয়েছিল।
২০১৯ সালের ঈদুল আযহায় তাকে ইউ অ্যান্ড মি, ডুডল অব লাভ, ও শিশির বিন্দু টু নাটকে দেখা যায়।
কাজল আরেফিন অমির ইউ অ্যান্ড মি ওয়েব নাটকটি ঈদের দিন ইউটিউব চ্যানেল ধ্রুব টিভিতে প্রকাশিত হয়। এতে তিশার বিপরীতে অভিনয় করেন আফরান নিশো
তার উল্লেখযোগ্য নাটকের মধ্যে রয়েছে কাঠ গোলাপের বসন্ত,এই শহরে মেয়েরা একা,অন্তর্জাল

তানজিন তিশা

আরও পড়ুন – বাংলাদেশের সেরা দশ সুন্দরী

২/মেহজাবিন চৈাধুরী
‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০০৯’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর মেহজাবীন অভিনীত প্রথম নাটক ছিল ইফতেখার আহমেদ ফাহমি পরিচালিত ‘তুমি থাকো সিন্ধুপারে’।
এরপর তিনি একে একে কাজ করেন ‘মাঝে মাঝে তব দেখা পাই’, ‘কল সেন্টার’, ‘মেয়ে শুধু তোমার জন্য’, ‘আজও ভালোবাসি মনে মনে’, ‘হাসো আন লিমিটেডসহ’ বেশকিছু নাটকে।
২০১৩ তে শিখর শাহনিয়াত পরিচালিত নাটক ‘অপেক্ষার ফটোগ্রাফি’ ছিল মেহজাবীন এর জন্য বড় একটি টার্নিং পয়েন্ট।
২০১৭ -এ মিজানুর রহমান আরিয়ানের পরিচালনায় বড় ছেলে’তে অভিনয় করে আবারও শীর্ষে চলে আসেন এই অভিনেত্রী।
দেশ-বিদেশে ব্যাপক প্রশংসিত হয় মেহজাবীন ও জিয়াউল ফারুক অপূর্ব অভিনীত বড় ছেলে।
২০১৮ ও ২০১৯ বড় ছেলে ও বুকের বা পাশে নাটকে অভিনয়ের জন্য মেরিল-প্রথম আলো শ্রেষ্ঠ টিভি অভিনেত্রীর পুরস্কার পান ।
অভিনেত্রীদের মধ্যে বর্তমানে সবচেয়ে বেশী পারিশ্রমিক নেন তিনি । একঘন্টার নাটকের জন্য ৫০ হাজার এবং টেলিফিল্মের জন্য নিয়ে থাকেন ৭০০০০ টাকা পর্যন্ত ।

মেহজাবিন চৈাধুরী

১/ নুসরাত ইমরোজ তিশা
বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী।
টিভি নাটকের মাধ্যমে তিনি তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। তবে গান দিয়েই শুরু হয়েছিল তিশার পথচলা।
খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি সকল শ্রেণীর দর্শকদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেন।
তিনি বিভিন্ন টিভি বিজ্ঞাপন ও নাটকে নিয়মিত অভিনয় করছেন।
পাশাপাশি কিছু চলচ্চিত্রেও কাজ করেছেন। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসমূহ হল নাট্যধর্মী থার্ড পারসন সিঙ্গুলার নাম্বার (২০০৯), টেলিভিশন (২০১২), ক্রীড়া নাট্যধর্মী অস্তিত্ব (২০১৬), নাট্যধর্মী ডুব (২০১৭) এবং হালদা (২০১৭)।
অস্তিত্ব চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এছাড়া তিনি ১০টি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেছেন।

নুসরাত ইমরোজ তিশা

Visit our English Website- http://www.asifsdairy.xyz

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *