ছি! এই ধরনের কথোপকথন কোন বাংলা সিনেমার দৃশ্য থাকতে পারে ভাবা যায় না।


ছি! এই ধরনের কথোপকথন কোন বাংলা সিনেমার দৃশ্য থাকতে পারে ভাবা যায় না।

সিনেমা বিনোদনের অন্যতম একটি মাধ্যম। সিনেমা মূলত একটি দেশের সংস্কৃতির দর্পন। সিনেমা মানুষকে যেমন হাসাতে পারে ঠিক তেমন কাঁদাতে পারে। 

মুদ্রার যেমন দুই পাশ থাকে ঠিক তেমন অশ্লীল সিনেমা সমাজকে ধ্বংস করে দিতে পারে। 

নবাব এল এল বি ১৬ ডিসেম্বর আই থিয়েটার নামে একটি ও টি টি প্লাটফর্মে মুক্তি দেওয়া হয়।  অনন্য মামুনের পরিচালনায় সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি,অর্চিতা স্পর্শিয়া,শহীদুজ্জামান সেলিম সহ আরও কিছু পরিচিত মুখ। 

বাংলাদেশে এই প্রথম কোন বানিজ্যিক সিনেমা ও টি টি প্লাটফর্মে মুক্তি দেওয়া হয়। মুক্তির পর থেকেই পরিচালকের নানা রকম কর্মকান্ডের জন্য সিনেমাটি আলোচনায় আসে। কোন রকম পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই সিনেমাটি অর্ধেক মুক্তি দেওয়া হয়। অনেকে টিকিট কেটেও মুভি দেখতে পারে নাই। 

এরকম নানা ঘটনায় চাপা পরে যায় সিনেমার গল্প বা কাহিনী। সিনেমার একটি দৃশ্যে স্পর্শিয়া থানায় যায় তার ধর্ষণের মামলাটি করার জন্য  সেখানে একজন পুলিশ অফিসার তার মামলাটা নেওয়ার জন্য তাকে যে সকল প্রশ্ন করে সত্যিই যদি থানায় ধর্ষণ মামলা নেওয়ার সময়ে এ সকল প্রশ্ন করা হয় তাহলে সত্যি তা লজ্জার। 

হয়তো  গল্পটাকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য এধরনের স্ক্রিপ্ট লেখা হয়েছে কিন্তু এধরনের স্ক্রিপ্ট লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই  সে দেশের সংস্কৃতি ও দর্শক এর কথা মাথায় রাখতে হবে। 

থানায় মামলা করতে গেলে একজন ধর্ষিতা নারীকে যদি এ সকল প্রশ্ন করা হয় তাহলে কোন নারী আর থানায় ধর্ষণ মামলা করতে যাবে না। 

তাই ভবিষ্যতে ও টি টি প্লাটফর্মে যে কোনো সিনেমা মুক্তি দেয়ার আগে সেই সিনেমাকেও সেন্সর এর আওতায় আনতে হবে এবং এই ধরনের স্পর্শকাতর’ বিষয়গুলোকে বাদ দিতে হবে। 

নিচে নবাব এলএলবি ছবির সেই দৃশ্যর লিংকটা দেওয়া হলো। 

https://www.facebook.com/alone.i.97/videos/1781181148710951/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *