চীনে দ্বিতীয় ধাপে করোনাভাইরাস


চীনে দ্বিতীয় ধাপে করোনাভাইরাস

চীনে দ্বিতীয় ধাপে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েই গেছে। দেশটির স্বাস্থ্য বিষয়ক শীর্ষ উপদেষ্টা ঝং নানশান জানান দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার কারণেই চীনে বাড়ছে কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঝুঁকি। এদিকে চীনের জিলিন প্রদেশের শুলানে নতুন করে করোনার ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। সেখানে নতুন করে আবারও সাতজন আক্রান্ত হওয়ার তথ্য মিলেছে। কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে প্রায় ৮ হাজার মানুষ।

দুর্বল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকার কারণেই মূলত চীনে দ্বিতীয় ধাপে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে বলে অশনী সংকেত দিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্য বিষয়ক শীর্ষ উপদেষ্টা ঝং নানশান। তার মতে পুরোপুরি কড়াকড়ি শিথিল হলে প্রথম ধাপের থেকেও ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। এসময় স্থানীয় প্রশাসনের খামখেয়ালি আচরণের সমালোচনা করেন তিনি বলেন, শুরু থেকেই ডব্লিউ এইচ ও পরামর্শ মতো কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করলে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস ভয়াবহ রূপ নিতো না।

আরও পড়ুন –

চীন করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল হলেও তিন মাসেরও কম সময়ের মধ্যে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা শূন্যে নেমে আসায় উহানের লকডাউন প্রত্যাহার করে উন্মুক্ত করে দেয়া হয় চীনের উহান। তুলে নেয়া হয় সব ধরনের বিধিনিষেধ।

তবে লকডাউন শিথিল করার এক মাসের মাথায় পুনরায় ক্লাস্টার সংক্রমণ শুরু হয়েছে চীনে। দেশটির উত্তর-পূর্বের জিলিন প্রদেশের শুলানে বৃদ্ধি পেয়েছে করোনা প্রাদুর্ভাব। রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, এরই মধ্যে সেখানকার অনেক গ্রাম লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে । কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে ৮ হাজার মানুষকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ৫শ সদস্যের আটটি মেডিকেল টিম।

উহানের প্রদেশের মতোই শুলানেও গত বছর প্রথম শনাক্ত হয় করোনাভাইরাস। করোনা সংক্রমণের হার কমে গিয়ে চীন যখন স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে ঠিক তখনই এলো নতুন অশনি সঙ্কেত।

Related Articles  বেজিংয়ে ফের সংক্রমণ, আতঙ্কে চীন

Read English Article just click this Link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *