চাল চোর-মাগো তোমার সন্তান মানুষ হয়নি।


মাগো তোমার সন্তান মানুষ হয়নি

আজ বাঙালি জাতি তথা পুরো বিশ্ব এক সংকটময় সময় পাড় করছে । অদৃশ্য এক ভাইরাস থামিয়ে দিয়েছে গতিশীল পৃথিবীকে। আজও প্রকৃতির নিয়মে ঠিকই ভোর হয়, সূর্য ওঠে কিন্তু গৃহবন্দি মানুষ বের হয় না তাদের কর্মস্থলে। এই বাংলাদেশের কথাই ভাবুন বন্ধ আছে সকল অফিস-কারখানা,সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। খেটে খাওয়া দিনমজুর কর্মের অভাবে আজ অনাহারে।

সমাজে এমন কিছু মানুষ আছে যারা অনাহারের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছে নিজস্ব অর্থায়নে আবার এমন কিছু মানুষ আছে যারা তাদের মুখের খাবার কেড়ে নিয়ে নিজেদের আখের গোছাচ্ছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ বা অনাহারের মুখে অন্ন তুলে দেওয়ার জন্য আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ প্রশংসনীয়। তিনি গরিব দুঃখী মানুষের জন্য নামমাত্র মূল্যে চাল,ডাল, ভোজ্যতেল বিতরণ করছেন কিন্তু সমাজের তথাকথিত কিছু নেতা সেই চাল যথাযথভাবে বন্টন না করে চুরি করে মজুদ করে রাখছে।ভবিষ্যতে বিক্রি করে অর্থ উর্পাজনের উদ্দেশ্যে। আপনারা কিসের নেতা?

আপনারা তো রাজনীতিকে পেশা হিসেবে নিয়ে ব্যবসা শুরু করছেন। কিছু বখাটে যেমন সকালে বাসা থেকে বের হয় একটা নিয়তে কীভাবে বাটপারি, ধান্দাবাজি বা মেয়েদের উত্ত্যক্ত করা যায়। আপনারাও রাজনীতিতে এসেছেন লুটেপুটে খাওয়ার জন্য। সবসময় তো লুটেপুটে খাচ্ছেন।

এই দুর্যোগের সময় না হয় একটু লুটপাট থেকে বিরত থাকুন। একজন অনাহারী যখন ক্ষুধার তাড়নায় আপনার সামনে কাঁদে তখন কি আপনার মনুষ্যত্ব বা বিবেক জাগ্রত হয় না? আচ্ছা আপনি তো একদিন মারা যাবেন তখন আপনার সন্তানদের সমাজের মানুষ বা তার বন্ধু বান্ধব কি বলবে একবার ভাবেন তো? বলবে চাল চোরের ছেলে, আশেপাশের লোকজন বলবে চাল চোর মারা গেছে।

আপনারা তো নেতা, প্রতিটা ভাষণে বলেন আপনারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ লালন করেন। চাল চোর কোন নেতা এই কথা বলে বঙ্গবন্ধুকে আর ছোট করবেন না। বঙ্গবন্ধু এমন নেতা যে নিজের সর্বস্ব দিয়ে অনাহারী গরিব দুঃখীদের সাহায্য করেছেন। আপনাদের তো নিজের ঘরের চাল দিতে হচ্ছে না শুধু সরকারের দেওয়া ত্রাণগুলো যথাযথভাবে গরিব দুঃখী মানুষের মধ্যে বন্টন করবেন।তা না করে সেগুলো মজুদ করছেন অর্থাৎ চুরি করছেন। বেঁচে থাকলে অনেক চুরি করতে পারবেন।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন এসকল চাল চোর নেতাদের উপর ভরসা না করে আপনি নিজে বিষয়গুলো তদারকি করবেন। আপনার আশেপাশের অনেক নেতার রক্তে দুর্নীতি মিশে গেছে। আপনি তাদের উপর নজরদারি রাখবেন, নাহলে আমার দেশের মানুষের ভাগ্যের কখনো উন্নয়ন হবে না।
দুর্যোগের মেঘ কেটে বাংলাদেশের আকাশে উঠবে নতুন এক সূর্য সেই প্রত্যাশা করি।

Related Articles  সরকারের দ্বিমুখী সিদ্ধান্তের পরও মানুষ পৌঁছেছে তার গন্তব্যে

One thought on “চাল চোর-মাগো তোমার সন্তান মানুষ হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *