করোনার পর বাংলাদেশ কেমন হবে?


করোনার পর বাংলাদেশ কেমন হবে?
করোনার পর সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছে লেখক।


করোনার পরবর্তীতে হয়তো দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ হয়ে যাবে না। কিন্তু যদি এমন হয় সমাজের সব বিত্তবান দারিদ্র্যর পাশে হাত বাড়িয়ে দিবে থাকবে না কোন বৈষম্য। সকল ব্যাংক তাদের অধিক মুনাফার কথা চিন্তা না করে স্বল্প সুদে ঋন প্রদান করে দারিদ্র্য বিমোচনে সহায়তা করবে।

হয়তো করোনার পর এমন হবে কোন সন্তান তার বাবা মাকে আর বৃদ্ধাশ্রম নামক বয়স্ক জেলে দিয়ে আসবে না। বন্দী বাবা মায়ের আর হয়তো জীবনের শেষ দিন সন্তানের মুখটা দেখে মারা যাওয়ার আক্ষেপ থাকবে না। সন্তানের কাছেই হয়তো বাবা মায়ের মৃত্যু হবে।

করোনার পর যে নতুন সূর্য উঠবে যে নতুন সকাল হবে সেই সকালে যে রিকশাওয়ালা আমাদের অফিসে নিয়ে যাবে বা আমাদের সন্তানকে স্কুলে পৌছে দেবে কারনে অকারনে রেগে গিয়ে তাকে হয়তো আমরা আর মারধর করবো না।

করোনার পর সরকারি অফিসগুলো যখন খুলবে তখন হয়তো ফাইল এক টেবিল থেকে অন্য টেবিলে নেওয়ার জন্য ঘুষ দিতে হবে না। সকল কাজ দ্রুত হয়ে যাবে।

করোনার পর হয়তো বঙ্গবন্ধুর আর্দশে গড়ে ওঠা নেতাগুলো জেগে উঠবে। আর হয়তো শুনতে হবে না চাল চোর বা তেল চোরের কোন গল্প। যদি এমন হয় কোন নেতা ত্রানের কোন চাল,তেল চুরি করবে না। তাহলে কমে আসবে আমাদের দেশের অনাহারীর সংখ্যা।

করোনার পর এমন এক বাংলাদেশ হবে যেখানে আমার দেশের মেয়েরা রাত দশটায় বাসায় ফিরলেও কোন ছেলে বাজে দৃষ্টিভঙ্গিতে ফিরে তাকাবে না। বরং তাকে নিরাপদে বাসায় ফেরার জন্য সাহায্য করবে।

এমন এক বাংলাদেশ করোনার পর দেখতে চাই যেখানে ছাত্ররা কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দিবে। গরীব দুঃখী মানুষকে সাহায্যর হাত বাড়িয়ে দেবে সকলে।

করোনা শেষ হওয়ার মধ্যে এমন এক সকাল আসুক যেখানে একটি যুবকের চাকরি পাওয়ার জন্য মেধাই যথেষ্ট, তার বাবার জমি বিক্রি করে টাকা জোগাড় করতে হবে না।

করোনা যেন বাংলাদেশের এক পু্র্নজন্ম দেয় যেখানে একজন অপরাধী তার অপরাধের জন্য খুব দ্রুত যথাযথ শাস্তি পাবে। কাউকে সঠিক বিচার পাওয়ার আশায় দ্বারে দ্বারে না ঘুরতে হয়।

করোনা কবে শেষ হবে কারও জানা নেই করোনার পর বাংলাদেশ কেমন হবে এই প্রশ্ন সবার মনে। ধ্বংসের মধ্যে দিয়েই সৃষ্টি হোক নতুন কিছুর। আমরা পাই লেখকের কল্পনার এক সোনার বাংলা।

Related Articles  ৬৫ বছরের বৃদ্ধ ও ১৩ বছরের কন্যাকে নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ ।

আরও পড়ুন- এসএসসির ফল মে তে,এইচএসসি ঈদের পরে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *